Close

LGBTQ+ সমাজের সমস্যা সমাধানে কমিটি গড়বে মোদি সরকার, ক্ষোভ বিশ্ব হিন্দু পরিষদের

কেন্দ্র সরকার কমিটি গঠন করবে LGBTQ+ সমাজের সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে, সমকামী বিবাহের প্রতিবাদে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের দেশব্যাপী কর্মসূচী।

বুধবার, ৩ রা এপ্রিল, কেন্দ্র সরকার সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছে যে একটি কমিটি গঠন করা হবে, নেতৃত্বে থাকবেন মন্ত্রিপরিষদের সচিব, এই কমিটির কাজ হবে LGBTQIA সমাজের দাবিগুলি খতিয়ে দেখা। বিবাহের স্বীকৃতি ছাড়াই সমকামী দম্পতিদের কী কী সামাজিক সুবিধা দেওয়া যেতে পারে এবং সেগুলোর প্রতিক্রিয়ায় কেন্দ্রের কী বক্তব্য, তা নিয়ে ৩ রা মে’র শুনানি তে হাজির হতে কেন্দ্রকে নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট।

“কিছু প্রকৃত মানবিক সমস্যা নিয়ে আলোচনা ছিল, যদি প্রশাসনিকভাবে কিছু করা যায়। সরকার ইতিবাচক। এর জন্য বিভিন্ন মন্ত্রকের সমন্বয় প্রয়োজন। মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করা হবে এবং আবেদনকারীদের দেওয়া পরামর্শগুলি বিবেচনা করা হবে,” সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেছেন।

সারা দেশের সমকামীরা সুপ্রিম কোর্টের কাছে আবেদন করেছিল যে সমকামী বিবাহগুলিকে বিশেষ বিবাহ আইনের অধীনে বৈধ করা উচিত। এই মামলার শুনানি করছিলেন প্রধান বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ের নেতৃত্বে একটি সাংবিধানি বেঞ্চ, যেখানে রয়েছেন সঞ্জয় কিষান কাউল, এস রাভিন্দ্র ভাট, পিএস নরসংহ এবং হীমা কোহলি।

বিশেষ পর্যবেক্ষণে আদালত প্রশ্ন তুলেছে, সমকামী দম্পতিদের সহবাসের অধিকারকে একটি মৌলিক অধিকার হিসাবে কেন্দ্রের গ্রহণযোগ্যতা আসলে একটি দ্বায়িত্বের জন্ম দেয়, এর সামাজিক পরিণতিগুলিকে খুঁজে বের করার দ্বায়িত্ব। কেন্দ্র কীভাবে এই ধরনের সম্পর্কের জন্য নিরাপত্তা এবং সামাজিক গ্রহণযোগ্যতার বোধ তৈরি করার পরিকল্পনা করে। “আপনি এটিকে বিয়ে বলতে পারেন বা নাও বলতে পারেন তবে কিছু চিহ্ন প্রয়োজনীয়।”

ওদিকে, সোমবার, ১লা মে, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ত্রিপুরার আগরতলায় বিক্ষোভের আয়োজন করেছে, বলেছে দেশ জুড়ে সর্বস্তরে এরকম প্রতিবাদ অনুষ্ঠিত করবে।

লেখক

Leave a comment
scroll to top