Close

শহীদ মিনারের সভায় কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা তৃণমূল নেতৃত্বের

পশ্চিমবঙ্গের প্রতি কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বঞ্চনার প্রসঙ্গ তুলে কেন্দ্রকে তীব্র সমালোচনা করল তৃণমূল নেতৃত্ব।

পশ্চিমবঙ্গের প্রতি কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বঞ্চনার প্রসঙ্গ তুলে কেন্দ্রকে তীব্র সমালোচনা করল তৃণমূল নেতৃত্ব।

বুধবার, ২৯শে মার্চ, শহীদ মিনারের পাদদেশে অনুষ্ঠিত একটি সভা থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানাল পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্ব।

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ এনে করা এই সভায় মূল বক্তা ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক ও সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি। সভার অন্যান্য বক্তাদের মধ্যে ছিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সদস্য সুব্রত বক্সী এবং তৃণমূল বিধায়ক ও পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

তৃণমূল সুপ্রিমো ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই সভায় যোগ দেননি, তিনি আরেকটি রেড রোডে একটি পৃথক সভায় উপস্থিত ছিলেন। মমতার সভাটি অবশ্য একটি ধর্নামঞ্চ ছিল যেটিও রাজ্যের প্রতি কেন্দ্রের বঞ্চনার বিরুদ্ধে আয়োজন করা হয়েছিল।

শহীদ মিনারের সভায় মূল বক্তা অভিষেক তার বক্তব্যের শুরু থেকেই কেন্দ্রের তীব্র সমালোচনা করতে থাকেন। সভায় হাজির কয়েক হাজার মানুষের উপস্থিতিকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন যে তীব্র গরম উপেক্ষা করেও এত সংখ্যক মানুষ উপস্থিত থাকার জন্য তিনি কৃতজ্ঞ। 

এরপর কেন্দ্রের তীব্র সমালোচনা করে তিনি বলেন যে ২০২১ এ পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) পরাজিত হওয়ার পর থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সরকার পশ্চিমবঙ্গকে বঞ্চিত করে আসছে।

তিনি অভিযোগ তোলেন যে কেন্দ্রীয় সরকার পশ্চিমবঙ্গে ১০৫ টি প্রকল্পের অর্থ প্রদান করা বন্ধ করে দিয়েছে, এগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল একশো দিনের কাজ বা মহাত্মা গান্ধী ন্যাশনাল রুরাল এমপ্লয়মেন্ট জেনারেশন অ্যাক্ট (MGNREGA), প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনা, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ইত্যাদি। 

তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে অভিযুক্ত করে বলেন যে কেন্দ্র পশ্চিমবঙ্গকে রাজ্যের বকেয়া পাওনা না দিলেও আদানিকে জীবন বীমা নিগম (LIC) এবং ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্ক (SBI) থেকে ১ লক্ষ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। 

এরপরে রাজ্যে চলমান তথাকথিত শিক্ষা দুর্নীতির প্রসঙ্গ তুলে তিনি অভিযোগ করেন যে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা নেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলিকে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ব্যবহার করছে। তৃণমূলের সততার পক্ষে বলতে গিয়ে তিনি বলেন যে তৃণমূলের কোনো নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে পার্টি সেই নেতাকে বহিষ্কার করেছে কিন্তু বিজেপির কোনো নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠলেও বিজেপি সেই নেতার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ স্বীকার করে না। এই প্রসঙ্গে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে তাঁকে গ্রেফতার করার জন্যও চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন।

পশ্চিমবঙ্গের প্রতি কেন্দ্রের বঞ্চনার অভিযোগ তুলে অভিষেক বলেন যে রাজ্য নিজের উদ্যোগে ৩,৬৭৫ কোটি টাকা খরচ করে ১২,০০০ কিমি রাস্তা তৈরির প্রকল্প ‘রাস্তাশ্রী’ চালু করেছে। তিনি আরও অভিযোগ করেন যে আদানিকে দেওয়া টাকা যদি রাজ্যের বকেয়া পাওনা মেটাতে কেন্দ্র ব্যবহার করত তাহলে রাজ্যের আরও উন্নতি করা সম্ভব হতো।

লেখক

Leave a comment
scroll to top