Close

“চুক্তি নেই! শিল্পী নেই!”: শিল্পীদের আন্দোলনে স্তব্ধ হলিউড

চুক্তি নেই! শিল্পী নেই! বেতন হ্রাস ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহারে কাজের জগতে হুমকিকে কেন্দ্র করে হলিউডের রাস্তায় নেমেছে লেখক ও অভিনেতারা।

Hollywood is triggered now.

স্টুডিওগুলির সাথে চুক্তির আলোচনা ভেঙে যাওয়ার ঠিক ২৪ ঘন্টা পরে, হলিউড অভিনেতাদের ধর্মঘট লস অ্যাঞ্জেলেসে শুক্রবার সকালে শুরু হয়েছে। কয়েক শতাধিক অভিনেতা টেলিভিশন এবং চলচ্চিত্র লেখকদের সাথে আন্দোলনে যোগদান করেছে, যারা ইতিমধ্যে দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে নেটফ্লিক্স, ওয়ার্নার, প্যারামাউন্ট এবং আরও অনেক সংস্থার বাইরে ফুটপাথে বিক্ষোভরত।

৬৩ বছরে প্রথম। লেখক ও অভিনয় শিল্পী-রা একসাথে ধর্মঘট করছেন হলিউডে‌। লেখকদের দাবি পূরণ না হলে যে তারাও আন্দোলনে যোগ দেবেন এমনটা আগেই জানিয়েছিলেন হলিউডের অভিনয় শিল্পীরা। এখন তারাও একযোগে রাস্তায় নেমেছেন। বেতন কমানো ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহারে কর্মক্ষেত্রে তৈরি হওয়া হুমকিতে বিক্ষুব্ধ ছিলেন হলিউডের লেখকেরা‌। গত ২রা মে থেকেই তারা আন্দোলনে নেমেছেন‌‌।

বড় স্টুডিওগুলোর কাছে বেশি পারিশ্রমিক চেয়ে একটি চুক্তি করতে চেয়েছিল লেখকদের সংগঠন রাইটার্স গিল্ড অফ আমেরিকা। সেই চুক্তির চেষ্টা ব্যার্থ হওয়াতেই এই ধর্মঘট বলে জানা গিয়েছে। তবে অভিনয় শিল্পীদের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন ও হলিউডের স্টুডিও গুলির আলোচনা খনিকের জন্য আলোর সন্ধান দিলেও বর্তমানে কার্যত কোনও সমাধান ছাড়াই শেষ হয়েছে আলোচনা‌। অভিনয় শিল্পীরা শেষ বার হলিউডে ধর্মঘট ডেকেছিল ১৯৬০ সালে। সেবার তিন মাস স্থায়ী হয় কর্মবিরতি।

দ্য স্ক্রীন অ্যাকটর্স গিল্ড ১লাখ ৬০ হাজার অভিনয় শিল্পীদের সংগঠন। এর মধ্যে আছেন জেনিফার লরেন্সের মতো প্রথম সারির শিল্পীরা। এই আন্দোলন চলতে থাকলে টক শো বা অ্যানিমেশন শো গুলি হয়তো চলতে থাকবে কিন্তু গ্র্যামী অ্যাওয়ার্ডসের মতো জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ঝুঁকির মুখে পড়বে। এছাড়াও মুক্তির অপেক্ষায় থাকা বহু প্রতিক্ষিত সিরিজগুলিও স্থগিত হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। আন্দোলনের জেরে গোটা হলিউড জুড়ে বিভিন্ন সিনেমা ও শো-এর শুটিং বন্ধ।

“চুক্তি নেই? অভিনেতা নেই! মজুরি নেই? লেখা নেই!” স্লোগান চলছে। যখন উভয় ইউনিয়নের সংগঠকরা আন্দোলনকারীদের সুস্থ থাকার জন‌্য রোদ ও রাস্তা থেকে দূরে থাকতে অনুরোধ করেছিল, তখন পাশ দিয়ে যাওয়া গাড়ি এবং ট্রাক তাদের আন্দোলনের সমর্থনে হর্ন বাজাচ্ছিল। “এটি শ্রমিকদের একটি বিস্ময়কর উদযাপন। এটি একটি বিনোদন শিল্পের শ্রমিক ধর্মঘটের চেয়েও অনেক বেশি কিছু,” বলেছেন ৭১ বছর বয়সী “টাইটানিক” তারকা ফ্রান্সেস ফিশার। আন্দোলনকারী লেখকরা স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড (SAG-AFTRA)থেকে লক্ষণীয়ভাবে উচ্চতর কণ্ঠের নতুন প্রবাহকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং আশা প্রকাশ করেছেন যে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত মুখের আগমন আন্দোলনের প্রতি নতুন করে মনোযোগ তৈরি করবে।

অন্যান্য দাবির মধ্যে, SAG-AFTRA স্টুডিওগুলিকে মূল্যস্ফীতির সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য শিল্পী-দের বেতন বৃদ্ধির আবেদন করেছে, যা হিট শো বা চলচ্চিত্রের লাভের একটি বড় অংশ। এই প্রস্তাবগুলি ডিজনি সিইও বব ইগার এই সপ্তাহে একটি মন্তব্যের মাধ্যমে “অবাস্তব” হিসাবে খারিজ করেছিলেন — যা বেশ কয়েকজন আন্দোলনকারীর মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে৷ “এটি শীর্ষস্থানীয় মানুষের মানসিকতার একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ,” ৪২ বছর বয়সী অভিনেতা ইজে আরিওলা বলেছেন। লেখক ফ্র্যাঙ্ক বলেছেন, “যদি তাদের [শীর্ষ কর্মকর্তাদের] চাকরি থেকে সরে যেতে হয়, তাহলে আমরা তাদের সমর্থন করার জন্যও সেখানে থাকব।”

লেখক

Leave a comment
scroll to top