Close

এবার ইউক্রেনে অস্ত্র পাঠাতে নারাজ মার্কিন ঘনিষ্ট দক্ষিণ কোরিয়া

দক্ষিণ কোরিয়া ইউক্রেনকে অস্ত্র সরবরাহ করছে না বলে জানিয়েছে তাদের রাষ্ট্র দফতর। রাশিয়ার প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ বলেছেন, দক্ষিণ কোরিয়া যদি ইউক্রেনে অস্ত্র পাঠায় তাহলে মস্কো উত্তর কোরিয়াকে অস্ত্র সাহায্য করতে পারে। এর আগে লাতিন আমেরিকার দেশগুলো মার্কিন চাপ উপেক্ষা করে ইউক্রেনে অস্ত্র পাঠাতে অস্বীকার করেছে। এবার বেঁকে বসল দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম মার্কিন ঘনিষ্ট দেশ দক্ষিণ কোরিয়া।

রাষ্ট্র দফতরের এক বর্ষীয়ান আধিকারীক জানান ইউক্রেনে যে যে সাহায্য পাঠানো হচ্ছিল তা বদলায়নি। তারা ইউক্রেনকে মানবিক ও আর্থিক সাহায্য করে আসছে।

“আমরা অস্ত্র সাহায্য করছি না তার কারন রাশিয়া-দক্ষিণ কোরিয়া বৈদেশিক সম্পর্ক স্থিতিশীল রাখাকে আমরা বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি। দক্ষিন কোরিয়ার আইন যুদ্ধপরিস্থিতিতে অস্ত্র সাহায্য করতে বাধা দেয় না। বা বিদেশ মন্ত্রক থেকেও কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই,” দক্ষিণ কোরিয়ার এক সরকারি আধিকারীক জানান।

রয়টার্সে এক সাক্ষাৎকারে দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি উন সুক-ইয়োল জানান যে ইউক্রেনকে তাঁরা অস্ত্রসাহায্য করতে পারেন যদি গুরুতর যুদ্ধনীতির লঙ্ঘন দেখা যায়।

রাশিয়ার সষ্ট্রীয় মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ মন্তব্য করেছেন, সিওল যদি ইউক্রেনকে অস্ত্র দেয় তাহলে সরাসরি রাশিয়ার বিপক্ষে যাবে।

রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের ডেপুটি চেয়ারম্যান দিমিত্রি মেদভেদেভ যে দক্ষিণ কোরিয়ার উচিত নিজের দেশের জনমত শোনা, কারণ রাশিয়ার আধুনিক অস্ত্র যখন দক্ষিণ কোরিয়া পৌঁছবে তখন জনগণের কী প্রতিক্রিয়া হবে তা তাদের এখনই ভাবা উচিত।

গত সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গেছে যে, দক্ষিণ কোরিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ১৫৫ এমএম-এর ৫,০০,০০০ রাউন্ড আর্টিলারি বন্দুক ঋন হিসেবে দিচ্ছে। এবং এই ধরনের অস্ত্রের প্রয়োজন এই মুহুর্তে ইউক্রেনের সবচে বেশি।

লেখক

Leave a comment
scroll to top