Close

ক্রিসমাস আনন্দে যুদ্ধ বিরতি পুতিনের

ক্রিসমাস উপলক্ষে ইউক্রেনের সাথে সংঘাতে ৩৬ ঘন্টার বিরতি ঘোষণা করলেন রুশ রাষ্ট্রপতি পুতিন।ব্যঙ্গ করলো আমেরিকা।

ক্রিসমাস আনন্দে যুদ্ধ বিরতি পুতিনের

রাশিয়ার অর্থডক্স চার্চের প্রধান কিরিল ছবি সত্ত্ব: উইকিপিডিয়া

রাশিয়ার অর্থডক্স চার্চের যাজক কিরিলের অনুরোধে ক্রিসমাস উপলক্ষে ইউক্রেনের সাথে ৩৬ ঘন্টার যুদ্ধ বিরতি ঘোষনা করেছেন রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন। এই যুদ্ধ বিরতি কার্যকর হচ্ছে ৬ জানুয়ারি, মস্কোর সময় দুপুর ১২টার পর থেকে ৭ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত। 

“আমরা ইউক্রেনীয় পক্ষের প্রতি শত্রুতা বন্ধ ঘোষণা করার জন্য এবং তাদের [ইউক্রেনীয় অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের] ক্রিসমাসের আগের দিন এবং বড়দিনের দিনে পরিষেবাগুলিতে যোগ দেওয়ার সুযোগ দেওয়ার জন্য আহ্বান জানাই।” এই মর্মে বৃহস্পতিবার বিবৃতি জারি করে ক্রেমলিন।

যদিও পুতিনের এই যুদ্ধ বিরতি প্রস্তাবকে যুদ্ধ কৌশল বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন। বাইডেন বলেন “আমার মনেহয় সে (পুতিন) অক্সিজেন খোঁজার চেষ্টা করছে।”

মার্কিন রাষ্ট্রপতির সুরেই ইউক্রেনিও প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির জেলেনেস্কি এক ভিডিও বার্তায় বলেন “ডনবাসে আমাদের ছেলেদের অগ্রগতি বন্ধ করতে এবং সরঞ্জাম, গোলাবারুদ এবং সৈন্যদের আমাদের অবস্থানের কাছাকাছি আনতে, তারা (রুশ সেনা) এখন ক্রিসমাসকে একটি আবরণ হিসাবে ব্যবহার করতে চায়”।

প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য পুরনো জুলিয়ান বর্ষপঞ্জি রাশিয়া সহ পূর্ব ইউরোপের বিভিন্ন দেশে সামাজিক বা ধর্মীয় কাজের জন্য প্রচলিত। ১৯১৭ সালে রুশ বিপ্লবের আগে জার শাসন অবধি জুলিয়ান বর্ষপঞ্জি রাশিয়া প্রচলিত ছিলো। পরবর্তীতে বলশেভিকরা আন্তর্জাতিক স্তরে মান্য গ্রেগরিয়ান বর্ষপঞ্জি চালু করে। জুলিয়ান বর্ষপঞ্জি ১৩ দিন পিছিয়ে থাকে ইউরোপীয় বা আন্তর্জাতিক স্তরে মান্য গ্রেগরিয়ান বর্ষপঞ্জি থেকে। ফলত গোটা দুনিয়ার ক্রিসমাস ২৫ ডিসেম্বর হলেও, রাশিয়ার ও পূর্ব ইউরোপের কিছু দেশে ক্রিসমাস ১৩ দিন পর পালন করা হয়, আন্তর্জাতিক হিসেবে যা ৭ জানুয়ারি। তাই এবছরে ৭ই জানুয়ারি ক্রিসমাস উপলক্ষ্যে যুদ্ধ বিরতি ঘোষণা রাশিয়ার।

লেখক

Leave a comment
scroll to top