Close

দিল্লী বাজেট আটকাল কেন্দ্র – রাজনৈতিক তরজার মধ্যেই পরে বাজেট পাশের অনুমতি

দিল্লী বাজেট আটকানোকে নিয়ে আপ আর কেন্দ্রের মধ্যে অভিযোগ ও পাল্টা অভিযোগে সরগরম দিল্লী রাজনীতি। পরে বাজেট পাশের অনুমতি দিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

দিল্লী বাজেট আটকানোকে নিয়ে আপ আর কেন্দ্রের মধ্যে শুরু রাজনৈতিক তরজা, অভিযোগ ও পাল্টা অভিযোগে সরগরম দিল্লী রাজনীতি।

photo credit - Arvind Kejriwal facebook page

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের দিল্লী বাজেট পেশ আটকে দেওয়া নিয়ে অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগে দিল্লীর রাজনৈতিক পারদ চরমে উঠল।

সোমবার, ২০শে মার্চ, একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি জারি করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দিল্লী সরকারকে দিল্লী বাজেট পুনরায় পেশ করার আর্জি জানায়। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানায় যে দিল্লী বাজেট প্রস্তাব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দ্বারা গৃহীত হওয়ার পর দিল্লীর লেফটেন্যান্ট গভর্নর দিল্লী বাজেট প্রস্তাবের কিছু প্রশাসনিক দিক নিয়ে প্রশ্নচিহ্ন তুলেছিলেন।

বিজ্ঞপ্তি থেকে আরও জানা যায় যে ভারতের রাজধানী দিল্লীর আর্থিক দিকের চিন্তা মাথায় রেখেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক গত শুক্রবার, ১৭ই মার্চ, দিল্লী সরকারকে একটি চিঠি লেখে। চিঠিতে দিল্লী সরকারকে অনুরোধ করা হয় যে লেফটেন্যান্ট গভর্নরের উদ্বেগ সঠিকভাবে নিরসন করেই যেন দিল্লী বাজেট পেশ করা হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যাচ্ছে যে দিল্লী সরকার চারদিন কেটে যাওয়ার পরেও সেই চিঠির কোনো উত্তর দেয়নি বা লেফটেন্যান্ট গভর্নরের উদ্বেগ দূর করতেও কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আর কিছু বলা না হলেও সোমবার প্রকাশিত এই বিজ্ঞপ্তি দ্বারা বোঝানো হয় যে দিল্লী সরকার লেফটেন্যান্ট গভর্নরের উদ্বেগ সংক্রান্ত কোনো পদক্ষেপ না নিলে দিল্লী বাজেট প্রস্তাব কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক গ্রহণ করবে না।

এই প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হওয়ার পরেই দিল্লীর আপ সরকার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলতে থাকে। একটি টুইট করে দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল অভিযোগ তোলেন যে ভারতের ইতিহাসে প্রথমবার কোনো কেন্দ্রীয় সরকার দিল্লী বাজেট আটকে দিল।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে দিল্লীর বর্তমান অর্থমন্ত্রী কৈলাশ গেহলত কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ইচ্ছাকৃত ভাবে দিল্লী বাজেট আটকে দেওয়ার অভিযোগ তুলে বলেন যে তিনি গত শুক্রবার নন, বরং গত সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের চিঠি পান এবং পাওয়ার পর সেইদিনই যথাযথ সদুত্তর পাঠিয়ে দেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রককে।

এর আগে একের পর এক টুইট করে দিল্লী বাজেট প্রস্তাবের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ তুলে ধরতে থাকে দিল্লী সরকার। টুইটগুলিতে আপ সরকার দেখাতে থাকে যে আপ সরকার দিল্লী বাজেট প্রস্তাবে স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিকাঠামোয় কতটা গুরুত্ব দিয়েছে।

অন্যদিকে দিল্লী বিজেপির মুখপাত্র হরিশ খুরানা দিল্লী বাজেট পেশ আটকে যাওয়ার জন্য দিল্লীর আপ সরকারকেই দায়ী করতে থাকেন। তিনি অভিযোগ তোলেন যে দিল্লী সরকার কোনো ব্যবস্থা নেয়নি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পাঠানো চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে। সংবাদমাধ্যম মিরর নাও কে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় দিল্লী বাজেট প্রকাশ করে দেওয়ার জন্য দিল্লী সরকারকে সমালোচনা করেন।

সংবাদসংস্থা পিটিআই থেকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দিল্লী বাজেট প্রস্তাব গ্রহণ করেছে এবং দিল্লী সরকারকে বাজেট পেশ করার সবুজ সংকেত দিয়েছে।

লেখক

Leave a comment
scroll to top