Close

ইসরাইলি ড্রোন থেকে ‘স্পর্শকাতর তথ্য’ উদ্ধারের দাবি হামাসের

গাজা উপত্যকার আকাশ থেকে ইসরাইলের একটি গোয়েন্দা ড্রোন আটক করেছে ফিলিস্তিনের সামরিক সংগঠন হামাস। ড্রোনটি আটক করার পর এটি থেকে ‘স্পর্শকাতর তথ্য’ উদ্ধারের দাবি করেছে সংগঠনটি।  

ফিলিস্তিনি গণমাধ্যমের বরাতে মঙ্গলবার ইরানের পার্সটুডে জানায়, অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার আকাশে বিশেষ অভিযান পরিচালনার সময় ইসরাইলি গোয়েন্দা ড্রোনটিকে গত শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) আটক করা হয়। হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জাদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেড ড্রোনটি আটক করে। 

আল-কাসসাম এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তাদের ইঞ্জিনিয়াররা ড্রোনটি খুলে এর ভেতর থেকে গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর তথ্য উদ্ধার করেছেন। গত শুক্রবার ড্রোনটি হারিয়ে গেলেও ইসরাইল এ সম্পর্কে কোনো তথ্য প্রাকশ করেনি।

তবে ড্রোন থেকে কি ধরনের তথ্য পাওয়া গেছে তা এখনও স্পষ্ট করেনি সংগঠনটি। 

এদিকে গাজা উপত্যকায় আবারও বেড়েছে সহিংসতা। গেলো কয়েক সপ্তাহে ওই অঞ্চলে দফায় দফায় অভিযান চালিয়েছে ইসরাইলি সেনারা। 

গত সপ্তাহে দখলদার সেনারা পশ্চিম তীরের জেনিন শহরে হামলা চালিয়ে অন্তত ১০ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে। 

অন্যদিকে পূর্ব জেরুজালেম আল-কুদসের একটি সিনাগগের সামনে একজন ফিলিস্তিনি বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত সাত ইসরাইলি অভিবাসী নিহত হয়।

উল্লেখ্য, ‘হামাস’ ফিলিস্তিনের একটি রাজনৈতিক ও সামরিক সংগঠন। হামাসের ইজ্ আদ-দীন আল-কাসসাম ব্রিগেড নামে একটি সামরিক শাখা আছে। জানুয়ারি ২০০৬ সালে ফিলিস্তিনি পার্লামেন্টে সংসদীয় নির্বাচনে অধিকাংশ আসনে জয় পায় সংগঠনটি। জুন ২০০৭ সাল থেকে হামাস ফিলিস্তিন অঞ্চলের গাজা ভূখণ্ড পরিচালিত করছে।

যদিও ইউরোপীয় ইউনিয়ন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও ইসরাইল হামাসকে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। অন্যদিকে ইরান, রাশিয়া, তুরস্ক, চীন, সিরিয়াসহ আরও কিছু দেশ হামাসকে মুক্তিকামী সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। 

লেখক

Leave a comment
scroll to top